Tuesday, June 3, 2008

বিকেলের রোদে দেখা মেয়ে

রঙিন কাগজে বদলানো যেত ঠোটের রঙ আর সেগুনের
কঁচিপাতা ঘসে দিলে হাতে, রাঙানো যেত তারেও।

শহুরে চোখে ওরকম গোলাপের ছাপা দেয়া জামা হাস্যকর বটে।
তবু আমি অবাক হয়েছিলাম। দুধ আলতা এক করে কখনও দেখিনি,
সেইদিন মনে হয়েছিল উপমাটা বুঝি তোমার জন্যই লিখেছিল কেউ।

মেঘের বিকেলে রোদ কেমন কোমল হয়ে পড়ে... সেই বিকেলে
তুমি না এলে আলবাব রোদ্দুরে মাতাল হতোনা কোনদিন।

মেয়ে তোমার বাড়িতে বুঝি অনেক রঙিন কাগজ ছিল? লাল আর
গোলাপ রঙের? রোজ সকালে কি তুমি সেগুনের সাথে প্রেম করতে?

8 comments:

  1. ঘুরে গেলাম আপনার বাড়ি। :)

    ReplyDelete
  2. আচ্ছা। রাতে বাসায় যেয়ে টেমপ্লেট মেইল করে দেবো।

    ReplyDelete
  3. দারুন লাগলো, শেষের লাইনটি কেন যেন কানে খুব বাজছে!!! " রোজ সকালে কি তুমি সেগুনের সাথে প্রেম করতে ? " অনেকদিন পরে লেখা দিলেন এখানে। তাই যেন ভাল লাগার অনুভূতিটা আরো তীক্ষ্ণ।

    ReplyDelete
  4. ধন্যবাদ রাশেদ, টক্সি এবং শ্রি (?)

    ব্লগস্পটে কমেন্ট পেলে আসলেই অসম্ভব ভাল লাগে। কতটা নিবিষ্ট মন হলে এখানে কমেন্ট করা যায় সেটা বুঝি আর কৃতজ্ঞ বোধ করি আপনাদের প্রতি।

    ভাল থাকবেন।

    ReplyDelete
  5. ভালো লাগা , শুধুই ভাললাগা।।
    মুগ্ধতা, নিবিড় মুগ্ধতা ।।

    ReplyDelete
  6. আপনার ব্লগবাড়ীতে অতিথিসেবার দারুণ রসদ। সবগুলো পোস্টই পাঠকের মুগ্ধতার প্রকাশ দাবী করে। বানানে শুধু আরেকটু মনযোগ দেবেন, এ আশাটা করতেই পারি, না কি?

    ReplyDelete
  7. মা.সু : আপনার মুগ্ধতা আমাকে প্রাণিত করে।

    নুশেরা: এতো বিশাল এক প্রাপ্তিরে ভাই, এই বিরাণ ভূমিতে আপনি এসেছেন।

    বানান নিয়া আমি সারাক্ষন বিব্রত থাকি। এ বদ দোষটা আমারে জ্বালিয়ে মারছে। লজ্জা পাই কত জনের কাছ থেকে কিন্তু বানান আর ঠিক হয় না। চেষ্টা শুরু করছি, দেখি কি করা যায়।

    ReplyDelete